AlokitoBangla
  • ঢাকা বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০
banner

সিরাজগঞ্জে হত্যা মামলায় সাবেক স্বামীসহ দুজনের মৃত্যুদণ্ড


FavIcon
এম দুলাল উদ্দিন আহমেদ, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: নভেম্বর ২৮, ২০২৩, ০৫:২০ পিএম
সিরাজগঞ্জে হত্যা মামলায় সাবেক স্বামীসহ দুজনের মৃত্যুদণ্ড
সিরাজগঞ্জে হত্যা মামলায় সাবেক স্বামীসহ দুজনের মৃত্যুদণ্ড

সিরাজগঞ্জে দুই নারী ও এক শিশু হত্যা মামলায় দুই যুবককে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি প্রত্যেক আসামিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই মামলায় আরও একজনকে বেকুসুর খালাস দিয়েছেন আদালত। জেলা ও দায়রা জজ ফজলে খোদা মো. নাজির আজ মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এই রায় দেন। 

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার চালা অফিস পাড়া মহল্লার হাজী মওলানা আব্দুল মুন্নাফের ছেলে  আলামিন (৩৬) ও জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি থানার পবাহার নয়াপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে রবিউল ইসলাম (২৭)।

জেলা ও দায়রা জজ আদালতের স্টেনোগ্রাফার রাশেদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০০৭ সালে গাজীপুর জেলার মাওনা চৌরাস্তায় একটি কাপড়ের দোকানে চাকরি করতেন আলামিন। এ সময় শ্রীপুর থানার টেংরা গ্রামের বাদল মন্ডলের স্ত্রী নাসরিন আক্তারের সঙ্গে পরিচয় হয় তার। পরবর্তীতে তারা গোপনে বিয়ে করেন।

বিয়ের বিষয়টি জানাজানি হলে নাসরিনের পরিবার ও স্বামী তাকে বুঝিয়ে আলামিনকে তালাক দেওয়ায়। এতে নাসরিনের ওপর ক্ষিপ্ত হয় আলামিন। পুনরায় নাসরিনের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরির চেষ্টা করেন তিনি। তবে, এতে ব্যর্থ হন আলামিন। ক্ষোভে নাসরিনকে হত্যার পরিকল্পনা করে তিনি।

পরিকল্পনা মোতাবেক ২০১৬ সালের ৩১ জুলাই আলামিন নাসরিনকে ফোন দিয়ে দেখা করতে বলে। নাসরিন তার ফুপু  মেহেরুন নেছা ও পাঁচ বছর বয়সী ভাগ্নি জাইমাকে সঙ্গে নিয়ে আলামিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে তার দোকানে যায়। এ সময় আলামিন ও সহযোগী রবিউল ইসলাম মিলে দোকানের পেছনে বিশ্রাম রুমে তাদের নিয়ে যায়। সেখানে বালিশ চাপা ও গলায় রশি পেচিয়ে ওই তিনজনকে হত্যা করে তারা। পরে মরদেহগুলো বস্তায় ভরে সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর থানার খাঁজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পেছনে যমুনা নদীতে ফেলে দেয়। পরের দিন তাদের মরদেহ ভেসে উঠলে পুলিশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

নিহতের পরিচয় না পাওয়ায় এনায়েতপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আজগর আলী বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা করেন। তদন্ত শেষে পুলিশ ওই তিনজনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে।

১৬ স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আজ আদালতের বিচারক আলামিন ও রফিকুল ইসলামকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন।

Banner
Side banner
Side banner