AlokitoBangla
  • ঢাকা সোমবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮

কবর খোড়া শেষ, সরকারি জমি দাবি করে লাশ দাঁফনে বাঁধা দিলেন নায়েব


FavIcon
কালিদাস রায়,সাতক্ষীরা, প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: জানুয়ারি ৬, ২০২২, ১১:০৬ পিএম
কবর খোড়া শেষ, সরকারি জমি দাবি করে লাশ দাঁফনে বাঁধা দিলেন নায়েব
কবর খোড়া শেষ, সরকারি জমি দাবি করে লাশ দাঁফনে বাঁধা দিলেন নায়েব

সাতক্ষীরার তালা সদরের মাঝিয়াড়া গ্রামে মসজিদের মুয়াজ্জিনের স্ত্রীর লাশ দাফনে বাঁধা দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) বিকেল ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ইউনিয়ন ভূমি সহকারি কর্মকর্তার দাবি, জায়াগাটি সরকারি। সরকারি জায়গায় আমি লাশ দাফন করতে দিবো না।তবে জমিটি ব্যক্তি মালিকানাধীন দাবি করেছেন মালিক পক্ষ।  কাগজপত্রও দেওয়া হয়েছে ভূমি কর্মকর্তাকে।মৃত জাহানারা বেগম (৬৫) মাঝিয়াড়া বাজার মসজিদের মুয়াজ্জিন দুলাল সরদারের স্ত্রী।মৃতের মেয়ে ডলি আক্তার জানান, মা সকালে স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। আমাদের ঘরবাড়ি না থাকায় বিভিন্ন সময়ে রাস্তার ধরে বসবাস করেছি। কয়েক বছর আগে সামান্য একটু জমি কিনে নতুন বসবাস করছে বা-বাবা। সেখানে মাকে দাফন করতে গেলে ভূমি অফিসের নায়েব এসে বাঁধা দিয়ে বলে গেছে, জমিটি সরকারি এখানে লাশ দাফন করা যাবে না। আমরা নিরুপায় হয়ে পড়েছি।তালা ইউনিয়ন ভূমি সহকারি কর্মকর্তা আনিসুর রহমান বলেন, তারা সরকারি কবরস্থানে লাশ দাফন করতে পারেন। ইউএনও স্যার আমাকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছিলেন। জমিটা সরকারি হওয়ায় এখানে দাফন করা যাবে না।তবে জমিটিকে ব্যক্তি মালিকানা দাবি করে স্থানীয় বাসিন্দা সৈয়দ মছরু জানান, জমিটি খ তফশীল ভুক্ত। সাতক্ষীরা আদালতের অবমুক্তির রায় সৈয়দ মজ্ঞুরুল হৃদা, ময়নুল হৃদা ও মোমিনুল হুদার পক্ষে। তালা সেটেলমেন্ট জরিপেও জমিটার রায় তারা পেয়েছেন। সরকার কিভাবে জমির মালিকানা দাবি করছে আমি জানি না। একজন মুসলিম হিসেবে তিনি কিভাবে লাশ দাফনে বাঁধা দেন। আমরা জমির সব কাগজপত্র নায়েবের কাছে দিয়ে এসেছি।তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, অভিযোগ পেয়েই ঘটনাস্থলে নায়েবকে পাঠানো হয়েছে। লাশ দাফনে বাঁধা সৃষ্টি করা কোন উদ্দেশ্য নয়। তবে দাফনের আগে জমিটা মালিকানাধীন না সরকারি সেটি নিশ্চিত হতে হবে।

Side banner