AlokitoBangla
  • ঢাকা শনিবার, ২৮ মে, ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

উঠানে পড়ে ছিল প্রবাসীর স্ত্রী ও মেয়ের মরদেহ


FavIcon
নোয়াখালী,প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৬, ২০২২, ০৭:৫৮ পিএম
উঠানে পড়ে ছিল প্রবাসীর স্ত্রী ও মেয়ের মরদেহ

নোয়াখালীর হাতিয়ায় উপজেলায় নিজ বাড়ির উঠান থেকে মা-মেয়ের মরদেহ  উদ্ধার করেছে পুলিশ।  নিহতরা হলেন হাতিয়া পৌরসভার ৯নম্বর ওয়ার্ডের গুল্লাখালী গ্রামের প্রবাসী রবিয়ল হকের স্ত্রী লুৎফা বেগম (৪৫) ও মেয়ে চাঁদনী (৭)।  রোববার (১৬জানুয়ারি) দুপুর পৌনে ৩টার দিকে হাতিয়া পৌরসভার ৯নম্বর ওয়ার্ডের গুল্লাখালী গ্রাম থেকে এ এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়।    স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত লুৎফা বেগমের বড় মেয়ে নাদিয়া বেগম (২৬) দুপুর ২টার দিকে বাবার বাড়িতে বেড়াতে আসেন। এসে দাখেন মা ও বোন উঠানে অজ্ঞান হয়ে পড়ে আছে। পরে তার চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে দুইজনকে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে। হাতিয়া থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পরিদর্শক (তদন্ত) কাঞ্চন কান্তি দাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে বলেন শিশু চাঁদনীর শরীরে কোন আঘাতের চিহৃ নেই।  তবে তার মায়ের কোমরে আঘাতের চিহৃ রয়েছে। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।  মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানা যাবে।   তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।  

Side banner

সারাদেশ বিভাগের আরো খবর

Small Banner