AlokitoBangla
  • ঢাকা রবিবার, ০৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯
banner

লাখে ১৫০০ টাকা লাভ দেয়ার প্রলোভনে শতকোটি টাকা আত্মসাৎ


FavIcon
আলোকিত বাংলা,প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: অক্টোবর ৯, ২০২২, ০৯:২৫ পিএম
লাখে ১৫০০ টাকা লাভ দেয়ার প্রলোভনে শতকোটি টাকা আত্মসাৎ
লাখে ১৫০০ টাকা লাভ দেয়ার প্রলোভনে শতকোটি টাকা আত্মসাৎ

রাজধানীর কাফরুল থানা এলাকায় আহমেদিয়া ফাইন্যান্স এন্ড কমার্স এমসিএস লি. এর গ্রাহকদের প্রতারণার মাধ্যমে শত কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে করা মামলায় দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) এর গোয়েন্দা মতিঝিল বিভাগ।

পুলিশ বলছে, গ্রাহকদের প্রতি লাখে ১ হাজার ৫শ টাকা লভ্যাংশ দেয়ার প্রলোভন দেখায় এবং গ্রাহকরা টাকা জমা রাখার পর কয়েক মাস লভ্যাংশ দেয়। এতে করে ১ হাজার ১০০ গ্রাহকদের কাছ থেকে শত কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে গ্রাহকদের সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

গ্রেপ্তারা হলো- মো. মনির আহম্মেদ ও মো. সাইফুল ইসলাম।

শনিবার দিবাগত রাত গুলশান থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা মতিঝিল বিভাগ।

রোববার ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার বলেন, রাজধানীর কাফরুল থানা এলাকায় আহমেদিয়া ফাইন্যান্স এন্ড কমার্স এমসিএস লি. নামে একটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান খুলে প্রতারক চক্রটি। গ্রাহকদের প্রতি লাখে ১ হাজার ৫শ টাকা লভ্যাংশ দেয়ার প্রলোভন দেখায় এবং গ্রাহকরা টাকা জমা রাখার পর কয়েক মাস লভ্যাংশ প্রদান করে। এতে করে ১ হাজার ১০০ গ্রাহকদের কাছ থেকে শত কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে গ্রাহকদের সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। পরবর্তীতে তারা প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ করে উধাও হয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, গ্রাহদের জমা করা টাকা আহমেদিয়া এ্যাপর্টমেন্ট এন্ড বিল্ডার্স এবং ইউরোস্টার হোম এ্যাপ্লায়েন্স কোম্পানিতে সরিয়ে নেয়। ভুক্তভোগীদের অভিযোগে কাফরুল থানায় একটি মামলা হয়। মামলাটি তদন্ত শুরু করে গোয়েন্দা মতিঝিল বিভাগের খিলগাঁও জোনাল টিম। মামলা তদন্তকালে গোয়েন্দা তথ্য ও প্রযুক্তির সহায়তায় গুলশান থানা এলাকা হতে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়।কাফরুল থানায় মামলায় প্রতারণার সাথে জড়িত অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তার অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান এ গোয়েন্দা কর্মকর্তা।

Banner
Side banner

অপরাধ বিভাগের আরো খবর

Small Banner
Side banner