AlokitoBangla
  • ঢাকা সোমবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮

আফগানিস্তানে বিনিয়োগ করবে আমিরাত


FavIcon
আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৯, ২০২১, ০৬:০৪ পিএম
আফগানিস্তানে বিনিয়োগ করবে আমিরাত
আফগানিস্তানে বিনিয়োগ করবে আমিরাত

আফগানিস্তানের প্রধানমন্ত্রী মোল্লা মোহাম্মদ হাসান আখুন্দের সাথে বৈঠক করেছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের নাগরিকত্ব, রাজস্ব ও বন্দর নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী আলী মোহাম্মদ বিন হামমাদ আল-শামসি। বৈঠকে আফগানিস্তানে বিনিয়োগ করতে আমিরাতের আগ্রহের কথা জানান আল-শামসি।বুধবার আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে প্রধানমন্ত্রীর দফতরে আমিরাতের মন্ত্রী মোল্লা হাসান আখুন্দের সাথে সাক্ষাত করেন বলে তালেবানের রাজনৈতিক দফতরের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাইম জানান। এই সময় উপ-প্রধানমন্ত্রী মোল্লা আবদুল গনি বারাদার ও আবদুস সালাম হানাফি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি অংশগ্রহণ করেন।আফগান প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাতে আমিরাতের মন্ত্রী আলী মোহাম্মদ বিন হামমাদ আল-শামসি জানান, সংযুক্ত আরব আমিরাত হেলমন্দ ও কান্দাহার স্থল বন্দরে এবং আফগানিস্তানের রেলওয়ে ও সৌরবিদ্যুৎ ব্যবস্থায় বিনিয়োগ করতে প্রস্তুত রয়েছে।এর আগে মঙ্গলবার আলী মোহাম্মদ বিন হামমাদ আল-শামসির নেতৃত্বে সংযুক্ত আরব আমিরাতের এক প্রতিনিধি দল মঙ্গলবার আফগানিস্তানে আসেন। আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি এই প্রতিনিধি দলের সাথে সাক্ষাত করেন।আফগান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আবদুল কাহহার বলখি জানান, অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কসহ বিভিন্ন বিষয়ে আমিরাতের প্রতিনিধি দলের সাথে আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলোচনা করেছেন।তিনি বলেন, সাক্ষাতে আমির খান মুত্তাকি জানান যে সংযুক্ত আরব আমিরাত সারাবিশ্বের সাথে আফগানিস্তানের বাণিজ্যের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ এক প্রবেশপথ হতে পারে।অপরদিকে আমিরাতের মন্ত্রী কাবুলের সাথে আবুধাবির জোরালো সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা এবং আফগানিস্তানের অর্থনীতি, শিক্ষা, প্রযুক্তি ও কৃষিক্ষেত্রে বিনিয়োগের বিষয়ে আলোচনা করেন বলে জানান আবদুল কাহহার বলখি।আফগানিস্তানের কাবুল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও অন্য চারটি বিমানবন্দর পরিচালনার বিষয়ে তুরস্ক ও কাতারের সাথে চলমান আলোচনার মধ্যেই সংযুক্ত আরব আমিরাত এই প্রস্তাব নিয়ে এলো।আফগানিস্তানে চলতি বছরের আগস্টে দেশটির সশস্ত্র রাজনৈতিক দল তালেবান নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করার পর বেশিরভাগ দেশ কাবুলে তাদের কূটনীতিক কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। কয়েকটি দেশে আফগানিস্তানে তাদের দূতাবাস চালু রাখলেও এখনো কোনো দেশ তালেবান নিয়ন্ত্রিত আফগান সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি।

Side banner