AlokitoBangla
  • ঢাকা সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯

রাষ্ট্রকে মেরামত করতে হবে : মোস্তফা ভুইয়া


FavIcon
মোঃ মারুফ সরকার,নিজস্ব প্রতিবেদক:
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২, ০৮:৪০ পিএম
রাষ্ট্রকে মেরামত করতে হবে : মোস্তফা ভুইয়া
রাষ্ট্রকে মেরামত করতে হবে : মোস্তফা ভুইয়া

ব্যক্তি ও দলীয় ক্ষুদ্র স্বার্থে রাষ্ট্রকে জিম্মি করে শাসকগোস্টি জাতীয় স্বার্থবিরোধী এক অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে বলে মন্তব্য করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করার জন্য রাষ্ট্রীয় সকল প্রতিষ্ঠানকে এক সর্বনাশা প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আইনগত ও নৈতিকভাবে ধ্বংসের শেষ সীমায় নিয়ে গেছে। এভাবে চলতে থাকলে রাষ্ট্রের অস্তিত্ব বড় ধরনের ঝুঁকিতে পড়বে। তাই রাষ্ট্রকে মেরামত করতে রাজনৈতিক নেতৃত্বকে দায়িত্ব নিতে হবে। বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে বাংলাদেশ লেবার পার্টির ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত কেক কাটা ও আলোচনা সভায় অতিথি হিসাবে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, রাষ্ট্র পুনর্গঠন ও পুননির্মাণসহ গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা এবং সর্বোপরি রাষ্ট্র মেরামতের প্রয়োজনে ‘জাতীয় ঐক্য’ প্রতিষ্ঠা অনিবার্য হয়ে উঠেছে। কোন একক বা দলীয় সরকার বিদ্যমান দুর্বৃত্ত পূর্ণ রাষ্ট্রের আর্থসামাজিক ও রাজনৈতিক সংকট মোকাবেলা করতে পারবেনা। সেজন্য রাজনৈতিক দলগুলোর মাধ্য কার্যকর জাতীয় ঐক্যের কোন বিকল্প নাই। তিনি আরো বলেন, রাষ্ট্রীয় গভীর সংকটে মৌলিক করণীয় উপেক্ষা করে শুধুমাত্র রাষ্ট্রক্ষমতা দখল কোন লক্ষ্য হতে পারে না। উপনিবেশিক রাষ্ট্রকাঠামোর আমূল সংস্কার, নিপীড়নমূলক আইন বাতিল, দুর্নীতি প্রতিরোধ, সর্বোপরি স্বাধীন দেশের উপযোগী রাষ্ট্রকাঠামো গড়ে তোলার মাধ্যমে রাষ্ট্র মেরামত করা এই মুহূর্তের মৌলিক কর্তব্য। তিনি বলেন, সাম্য মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা তথা শোষণ মুক্তির লড়াইকে বেগবান করতে হবে। আগামী প্রজন্মের জন্য রাজনৈতিক দিকনির্দেশনা রেখে যেতে হবে। বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান হামদুল্লাহ আল মেহেদীর সভাপতিত্বে ও মহাসচিব আবদুল্লাহ আল মামুনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিএলডিপি চেয়ারম্যান এম. নাজিমউদ্দীন আল আজাদ, এনডিপি চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মোর্তজা, জাতীয় পার্টি-জেপি প্রেসিডিয়াম সদস্য সাদেক সিদ্দিকী, বাংলাদেশ মুসলিম লীগ মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের, গণআজাদী লীগ মহাসচিব মুহাম্মদ আতাউল্লাহ খান, বাংলাদেশ কংগ্রেস মহাসচিব এডভোকেট ইয়ারুল ইসলাম, বিকল্পধারা বাংলাদেশ যুগ্ম মহাসচিব এনায়েত কবির, বাংলাদেশ জাস্টিজ এন্ড ডেপোলাপমেন্ট পার্টি চেয়ারম্যান মুহম্মদ দেলোয়ার হোসেন, এনডিএম সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান হীরা, এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ডিএনপি চেয়ারম্যান আহসানুল্লাহ শামীম, ইসলামিক পার্টি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ, জাতীয় নারী আন্দোলন সভাপতি মিতা রহমান, লেবার পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান সুরুজ্জামান জামান, প্রচার সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় নতা তাজুল ইসলাম প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে হামদুল্লাহ আল মেহেদী পার্টির প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা আবদুল মতিন, সাবেক চেয়ারম্যান শামসুল হুদা মামুনসহ প্রয়াত নেতা-কর্মীদের প্রতি গভীর শ্রদগ্ধা জানিয়ে বলেন, জনগণের অংশীদারিত্বমূলক একটি গণতান্ত্রিক সমাজ বিনির্মাণই ছিল মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। জাতির সে আকাঙ্ক্ষা আজও পূরণ হয়নি। বরং রাষ্ট্রের মৌলিক প্রশ্নে রাজনৈতিক করণীয় সম্পাদনের লড়াই আজও চলছে। তিনি বলেন, শ্রমজীবী জনগণের মুক্তির লক্ষে নতুন শাসন ব্যবস্থা প্রবর্তন করতে লেবার পার্টিকে তার সংগ্রাম ও লড়াই অব্যাহত রাখতে হবে।

 


 

Side banner